Home / সর্বজনীন পেনশন / অনলাইনে সর্বজনীন পেনশন রেজিষ্ট্রেশন করার সহজ নিয়ম (100% Latest update)

অনলাইনে সর্বজনীন পেনশন রেজিষ্ট্রেশন করার সহজ নিয়ম (100% Latest update)

অনলাইনে সর্বজনীন পেনশন রেজিষ্ট্রেশন করার সহজ নিয়ম (100% Latest update)
  • Votes: 0
  • Comments: 2
4.9/5 - (1057 votes)
Popularity 61.98% 61.98%
Download

Display ad 1 V
4.9/5 - (1057 votes)

আপনি কি অনলাইনে সর্বজনীন পেনশন রেজিষ্ট্রেশন করতে চান? তাহলে জাতীয় পেনশন কর্তৃপক্ষের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট www.upension.gov.bd প্রবেশ করে ভোটার আইডি কার্ড, মোবাইল নম্বর, পাসপোর্ট নম্বর, ইমেইল আইডি এবং অন্যান্য তথ্য দিয়ে ইউপেনশন নিবন্ধন করতে পারবেন। কেবলমাত্র ১ম কিস্তির চাঁদা পরিশোধ করে সর্বজনীন পেনশন স্কিমে আবেদন করতে পারবেন।

সর্বজনীন পেনশন বলতে কি বুঝায়?

আমরা সকলেই জানি দেশের সরকার প্রাপ্তবয়স্ক জনগণ অর্থাৎ ১৮ থেকে ৫০ বছর বয়সী নাগরিকদের জন্য সর্বজনীন পেনশন ব্যবস্থা (Universal Pension Scheme বা U Pension bd) চালু করেছে । ২০২৩ সালের আগস্ট মাসের ১৭ তারিখ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই সর্বজনীন পেনশন স্কিম (ইউপেনশন) চালু করেন।

১৮ বছরের বেশি বয়সী যে কোন বাংলাদেশী নাগরিক সর্বজনীন পেনশন স্কিম অনুযায়ী মাসিক, ত্রৈমাসিক বা বার্ষিক চাঁদা পরিশোধ করে পেনশন সুবিধা গ্রহণ করতে পারবেন।

সরকার সর্বমোট ৬টি পেনশন স্কিমের কথা আলোচনা করলেও আপাতত সর্বজনীন পেনশন ব্যবস্থায় ৪টি ভিন্ন পেনশন স্কিম রয়েছে। নিচে দেয়া আর্টিকেল গুলোতে বর্তমানে সচল সর্বজনীন পেনশন স্কিম সমূহের মাসিক চাঁদার হার, পেনশন মুনাফা সহ সকল কিছু বিস্তারিত আলোচনা করা করা হয়েছে।

সর্বজনীন পেনশন আবেদনের উপায় কি কি

বর্তমান সময়ে সর্বজনীন পেনশন আবেদন করার দুইটি উপায় রয়েছে। ভবিষ্যতে যদি আরও কোন উপায় তৈরি হয় তবে অবশ্যই আমরা এই আর্টিকেলে আপডেট দেয়ার চেষ্টা করব। সর্বজনীন পেনশন আবেদন করার জন্য যে সকল উপায় অবলম্বন করতে হবে তা নিচে তুলে ধরা হলো:

  • সোনালী ব্যাংকের মাধ্যমে সর্বজনীন পেনশন আবেদন
    ঘরে বসে অনলাইনের মাধ্যমে সর্বজনীন পেনশন আবেদন

সোনালী ব্যাংক পেনশন আবেদন: স্থানীয় সোনালী ব্যাংকের যে কোন শাখায় সর্বজনীন পেনশনের জন্য আবেদন করতে পারবেন। সেই সাথে বিকাশ, নগদ, রকেট সহ যে সকল পেমেন্ট গেটওয়ে সর্বজনীন পেনশন সিস্টেম সাপোর্ট করে সে সকল মোবাইল ব্যাংকিং অথবা মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস ব্যবহার করে Sonali Bank Payment Gateway এর মাধ্যমে যে কোন ব্যাংক থেকে চাঁদা জমা দেয়া যাবে।

অনলাইনে সর্বজনীন পেনশন আবেদন: তথ্যপ্রযুক্তির যুগে যারা স্মার্টফোন কিংবা কম্পিউটার, ল্যাপটপ ব্যবহার করতে পারেন তারা চাইলেই ঘরে বসে কোন ধরনের ঝামেলা ছাড়াই অনলাইনে সর্বজনীন পেনশন আবেদন করতে পারবেন।

ফ্রিতে নিন এনসিসি ব্যাংক ক্রেডিট কার্ড, 2024 সালের নতুন আপডেট

কিভাবে অনলাইনে সর্বজনীন পেনশন আবেদন এবং যেকোনো পেনশন স্কিমে রেজিস্ট্রেশন করতে হয় তা সম্পর্কে আজকের এই আর্টিকেলে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

সর্বজনীন পেনশন আবেদন করতে কি কি লাগে?

Universal Pension বা সর্বজনীন পেনশন আবেদন করতে আপনার প্রয়োজন হবে:

  • জাতীয় পরিচয় পত্র, অথবা জন্ম নিবন্ধন, অথবা পাসপোর্ট;
  • মোবাইল নম্বর ও ইমেইল এ্যাড্রেস;
  • ব্যাংক একাউন্ট নম্বর;
  • নমিনির জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর;
  • নমিনির মোবাইল নম্বর;

আসুন এবার জেনে নিই, আপনি কিভাবে এই সর্বজনীন পেনশন রেজিস্ট্রেশন করবেন।

ধাপ ১: পেনশন রেজিষ্ট্রেশন করুন

upension info পেনশন রেজিষ্ট্রেশন করার নিয়ম
upension info পেনশন রেজিষ্ট্রেশন করার নিয়ম
  • সর্বজনীন পেনশন রেজিষ্ট্রেশন করার জন্য প্রথমে যেকোনো ইন্টারনেট ব্রাউজার ওপেন করুন।
  • অ্যাড্রেস বারে (www.upension.gov.bd) ইউপেনশন ডট গভ ডট বিডি লিংকে প্রবেশ করুন।
  • এরপর শর্তাবলী পড়ুন।
upension info পেনশন রেজিষ্ট্রেশন করার নিয়ম
সর্বজনীন পেনশন আবেদন শর্তাবলী
  • এবং সম্মত থাকলে সম্মত আছি বাটনে ক্লিক করুন।
  • রেজিস্ট্রেশনের জন্য প্রদর্শিত পেজে প্যাকেজ বা স্কিম সমূহ ঘরে ক্লিক করুন।
  • রেজিস্ট্রেশনের জন্য প্রদর্শিত পেজে প্যাকেজ বা স্কিম সমূহ ঘরে ক্লিক করে ড্রপডাউন বক্স থেকে আপনার উপযুক্ত স্কিম নির্বাচন করুন।
পেনশনার রেজিস্ট্রেশন করুন
পেনশনার রেজিস্ট্রেশন
  • দশ বা তেরো বা সতেরো সংখ্যার জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বরটি লিখুন।
  • এরপর জন্ম তারিখ নির্বাচন করুন।

জাতীয় পরিচয় পত্রের প্রদানকৃত জন্ম তারিখ নির্বাচন করতে হবে। অন্যথায় সিস্টেম আপনার সর্বজনীন পেনশন রেজিস্ট্রেশনের আবেদন গ্রহণ করবে না।

  • মোবাইল নাম্বার টাইপ করুন।
  • আপনি প্রবাসী স্কিমে আবেদন করলে ইমেইল আইডি টাইপ করুন। অন্য স্কিমের জন্য ইমেল আইডি প্রয়জন নেই।

এখন ক্যাপচা টাইপ করুন। ক্যাপচা কোড পরিষ্কার ভাবে বোঝা না গেলে নতুন ক্যাপচা তে ক্লিক করলে নতুন ক্যাপচা আসবে।

Upension Registration
Upension Registration

নতুন ক্যাপচা টাইপ করে পরবর্তী পেজে ক্লিক করুন। আপনার মোবাইল নাম্বারে ওটিপি যাবে। নির্ধারিত বক্সে ওটিপি টাইপ করে পরবর্তী পেজে ক্লিক করুন।

ধাপ ২: ব্যক্তিগত তথ্য দিন

upension registration process
upension registration process
  • প্রথমে আপনার ব্যক্তিগত তথ্য প্রদান করতে হবে।
  • এই পেজে জাতীয় পরিচয় পত্র নাম্বার, জন্ম তারিখ, মোবাইল নাম্বার স্বয়ংক্রিয়ভাবে আসবে।
  • এরপর বার্ষিক আয় ঘরে আপনার বার্ষিক আয়ের তথ্য নিশ্চিত করুন।
  • আপনার পেশা নির্বাচন করুন।
  • আপনার প্রয়োজনীয় তথ্য স্বয়ংক্রিয়ভাবে নিচে প্রদর্শিত হবে।
  • জাতিয় পরিচয় পত্রে উল্লেখিত স্থায়ী ঠিকানা অনুযায়ী বিভাগ, জেলা, উপজেলার তথ্য ঠিক আছে কিনা দেখুন।
  • ঠিক না থাকলে পুনরায় ড্রপডাউন মেনু থেকে নির্বাচন করুন।

ধাপ ৩: স্কিমের তথ্য দিন

upension registration scheme
upension registration scheme
  • এখন পরবর্তী বাটনে ক্লিক করে স্কিম তথ্য প্রদান করুন। আপনার মাসিক চাঁদার পরিমাণ নির্ধারণ করুন।
  • নির্ধারিত চাঁদা, মাসিক, ত্রি মাসিক বা বার্ষিক যে উপায় পরিশোধ করতে চান তা নির্ধারণ করুন।
  • এরপর পরবর্তী বাটনে ক্লিক করে ব্যাংক তথ্য প্রদান করুন।

ধাপ ৪: ব্যাংক একাউন্টের তথ্য দিন

upension application Bank information
upension application Bank information
  • ব্যাংক হিসাবের নাম আপনার জাতীয় পরিচয় পত্রের নাম অনুযায়ী দেখা যাবে।
  • হিসাবের নাম পরিবর্তন করতে চাইলে টাইপ করুন। আপনার ব্যাংক একাউন্ট নম্বরের তথ্য দিন।
  • হিসাবের ধরন নির্বাচন করুন। রাউটিং নাম্বার জানা থাকলে টাইপ করে পাশে সার্চ বাটনে ক্লিক করুন।
  • ব্যাংক নাম ও ব্যাংক শাখা স্বয়ংক্রিয়ভাবে চলে আসবে।

উল্লেখ্য যে রাউকিং নাম্বার জানা না থাকলে রাউটিং নাম্বার জানা নেই বাটনে ক্লিক করে ব্যাংক নাম ও ব্যাংক শাখা নির্বাচন করলে রাউটিং নাম্বার চলে আসবে।

  • এরপর পরবর্তী বাটনে ক্লিক করে নমিনেশন তথ্য প্রদান করুন।

ধাপ ৫: নমিনি যুক্ত করুন

upension application online Nominee
upension application online Nominee

নমিনির আইডির ধরণ ঘরে ড্রপডাউন তালিকা থেকে নমিনির জাতীয় পরিচয় পত্র বা জন্ম নিবন্ধন বা পাসপোর্ট যেকোনো একটি নির্বাচন করুন।

  • সে অনুযায়ী পরিচিতি নম্বর ও জন্ম তারিখ টাইপ করুন।
  • নমিনি যুক্ত করুন বাটনে ক্লিক করুন।
  • এখন নিচে নমিনির বিস্তারিত তথ্য আসবে।
  • যদি নমিনির মোবাইল নম্বর থাকে তাহলে তা টাইপ করুন।
  • নমিনীর সাথে আবেদনকারীর সম্পর্ক ও নমিনির প্রাপ্যতার হার ঘরের তথ্য পূরণ করুন।

একাধিক নমিনি থাকলে “আরো নমিনি যুক্ত করুন” বাটনে ক্লিক করে একই পদ্ধতিতে নমিনি যুক্ত করুন।
প্রয়োজনে ডিলিট করুন লেখা লাল বাটনে ক্লিক করে নমিনির তথ্য ডিলিট করতে পারবেন।

উল্লেখ্য যে সকল নমিনি মিলিয়ে প্রাপ্যতার হাড়ের যোগফল একশো হবে।

  • সকল তথ্য সঠিক থাকলে পরবর্তী বাটনে ক্লিক করে আপনার পূরণকৃত সম্পূর্ণ ফর্মটি দেখুন।
upension registration final process
upension registration final process

সকল তথ্য ঠিক থাকলে আপনার সম্মতি প্রদানের জন্য নিচের বক্সে ঠিক চিহ্ন দিন। প্রয়োজনে আপনি “ডাউনলোড করুন” বাটনে ক্লিক করে আবেদনটি ডাউনলোড করে দেখতে পারবেন। “আবেদন সম্পূর্ণ করুন” বাটনে ক্লিক করে রেজিস্ট্রেশনের কাজ সম্পন্ন করুন।

ধাপ ৭: চাঁদা পরিশোধ করুন

upension registration Payment system
upension registration Payment system

রেজিস্ট্রেশনের পরে এখন আপনাকে পেমেন্ট করতে হবে। এজন্য প্রদর্শিত পেমেন্ট পেজে সবুজ রঙের বক্সে লেখা পেমেন্ট করুন অপশনে ক্লিক করুন।

পেমেন্ট গেটওয়ে পেজে নিজের সোনালী ব্যাংক তথ্য বা মোবাইল ব্যাংকিংএর অপশন দেখতে পাবেন। আপনি যেই মাধ্যম দ্বারা টাকা পরিশোধ করতে চান সেই মাধ্যমটি নির্বাচন করুন।

এখন mode মেন amount ও crossing fees এবং টোটাল amount এর তথ্য দেখতে পাবেন। সকল তথ্য যাচাই করে confirm button এ ক্লিক করুন। এখন আপনার পেমেন্টটি সফল হয়েছে সংক্রান্ত একটি মেসেজ স্ক্রিনে দেখতে পাবেন।

প্রয়োজনে প্রথম পেমেন্টের স্লিপটি ডাউনলোড বাটনে ক্লিক করে ডাউনলোড করতে পারবেন।

আপনার সর্বজনীন পেনশন রেজিস্ট্রেশন ও পেমেন্ট সম্পন্ন হয়েছে। এখন আপনার “পেনশনার আইডি” পেতে “ইউজার আইডি” তৈরি করুন।

ধাপ ৮: পেনশনার আইডি তৈরি করুন

পেমেন্ট ও পেনশনার আইডি তৈরি করবেন যেভাবে
পেমেন্ট ও পেনশনার আইডি তৈরি করবেন যেভাবে
  • ইউজার আইডি তৈরির জন্য পেমেন্ট স্লিপ ডাউনলোড অপশনের নিচে “ইউজার তৈরি করুন” লেখা অপশনে ক্লিক করুন।
  • প্রদর্শিত পেজে আপনার ইউজার আইডি স্বয়ংক্রিয়ভাবে আসবে।
  • এটা আপনার পেনশনের আইডি যা ভবিষ্যতের জন্য সংরক্ষণ করতে হবে।
  • আপনার পছন্দ মতো সর্বনিম্ন ছয় ডিজিটের একটি পাসওয়ার্ড টাইপ করুন।
  • password টি নিশ্চিত করনের জন্য পুনরায় টাইপ করুন। “ইউজার তৈরি করুন” বক্সে ক্লিক করুন।

তারপর ঠিক আছে বাটনে ক্লিক করে আপনার ইউজার আইডি তৈরির কাজ শেষ করুন এবং আপনার পেনশনের আইডি ও পাসওয়ার্ড গোপন রাখুন।

এগুলো পড়তে পারেন,

এই আইডি এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে আপনি যেকোনো সময় সর্বজনীন পেনশন স্কিমের সিস্টেমে লগইন করতে পারবেন।

এখন আপনি “পেশন লগইন” করে আপনার ব্যক্তিগত সাধারণ তথ্য, পরবর্তী পরিষদের তারিখ, সর্বমোট বকেয়া, সর্বমোট মুনাফা সহ সকল বিষয়বস্তু দেখতে পারবেন।

সর্বজনীন পেনশন আবেদন পদ্ধতি (ভিডিও) দেখুন

এই ভিডিওটি সম্পূর্ণ মনোযোগ সহকারে দেখলে আপনি অবশ্যই অনলাইনে সর্বজনীন পেনশনের যে যেকোনো একটি পেনশন স্কিমে আবেদন করতে পারবেন।

অনলাইনে সর্বজনীন পেনশন রেজিষ্ট্রেশন করার সহজ নিয়ম
অনলাইনে সর্বজনীন পেনশন রেজিষ্ট্রেশন করার সহজ নিয়ম (100% Latest update)
Download  অনলাইনে সর্বজনীন পেনশন রেজিষ্ট্রেশন করার সহজ নিয়ম (100% Latest update) 

2 Comments

Comment on
  1. Guest Dark
    রাফিয়া
    Guests

    সর্বজনীন পেনশন রেজিষ্ট্রেশন সম্পর্কে এত সুন্দর আর্টিকেল লেখার জন্য ধন্যবাদ। প্রথম এই সরকারি পেনশন রিলেটেড সরকারি ব্লগ মানুষের অনেক সমস্যার সমাধান দিবে আশা করি।

      1. Guest Dark
        Afshana Mimi
        administrator

        আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করার জন্য অনেক ধন্যবাদ তবে সকলের অবগতির জন্য জানিয়ে রাখি এটিকোন সরকারি ব্লগ সাইট নয়। সর্বজনীন পেনশন রিলেটেড যে কোন ধরনের সমস্যা এবং তার সমাধান সম্পর্কে এই ব্লগে আলোচনা করা হয়। যদি আপনি পেনশন আবেদন করে থাকেন অথবা পেনশন রেজিস্ট্রেশন করার জন্য গুগল এ আর্টিকেল সার্চ করে থাকেন তাহলে ইউপেনশন ইনফো আপনার জন্য পেনশন রিলেটেড সকল ধরনের সমস্যার সমাধান দিতে প্রস্তুত। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।

Comments